অরল্যান্ডোতে বিজয় দিবসের আলোচনা সভা
English

ব্রেকিং নিউজ
অরল্যান্ডোতে বিজয় দিবসের আলোচনা সভা

অরল্যান্ডোতে বিজয় দিবসের আলোচনা সভা

অরল্যান্ডোতে বিজয়ের ঊনপঞ্চাশ বৎসর পূর্তি ও ৫০তম বিজয় দিবস উপলক্ষে সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা মহানগর আওয়ামী লীগরে উদ্যোগে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) স্থানীয় সময় রাত সাতটায় জুম অ্যাপের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র, বাংলাদেশ ও ইউরোপের বিশিষ্ট রাজনীতিবীদ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

বাঙালির হাজার বৎসরের শৌর্য বীর্যের বিজয়ের গৌরবান্বিত হওয়ার মহান দিনটিকে স্মরণ করে আলোচনা সভায় মোআজ্জেম ইকবালের সভাপতিত্বে, ফখরুল আহসান শেলীর সঞ্চালনায় সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন পাঠ এবং এক মিনিট নিরাবতা পালন করা হয়।

মুক্তি সংগ্রামের শহীদদের সন্মান জানিয়ে স্বাগত বক্তব্যে মোআজ্জেম ইকবাল মুক্তিযুদ্বের প্রেক্ষাপট, বঙ্গবন্ধুর অবদান, মুক্তিযোদ্ধাদের বীরোচিত জীবনাসর্গ এর চিত্র তুলে ধরেন।

লক্ষ লক্ষ প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত বাংলাদেশ আজ বিশ্বের উন্নয়নের রোল মডেল বিশ্লেষণ করেন ফখরুল আহসান শেলী।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, একাত্তরে সীমাহীন দুর্ভোগ, আত্মত্যাগ, সাগর নদী রক্তে এই জাতির সর্ব শ্রেষ্ঠ অর্জন বিজয় মুকুট শিরোধার্য করেছিল বাংলাদেশ। আর এটা সম্ভব হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য নেতৃতে। তাঁকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়েছে এদেশের ইতিহাস, উন্মেষ ঘটেছিলো একটি জাতির জম্মগাঁথা। জাতির জনকের আহবানে সাড়া দিয়ে সমগ্র জাতি জাপিয়ে পড়ে মুক্তিযুদ্ধে এবং ছিনিয়ে আনে বিজয়। পাকিস্তানী বাহিনী পরাজয় মেনে আত্মসমর্পন করে এই দিনে। বঙ্গবন্ধু ব্যতিরেকে এদেশের স্বাধীনতা ইতিহাস বিকাশ মুক্তি কোনোটাই সম্ভব হতো না। যাঁদের প্রাণের বিনিময়ে আমরা পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে মুক্ত হতে পেরেছি তাঁদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।

বঙ্গবন্ধু পরিষদের ইউরোপীয় নেতা ও লেখক. মমতাজুল জোয়ার্দার বলেন, সাতই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের সফল পরিণতি স্বাধীন বাংলাদেশ। ওই ভাষণের প্রতিটি শব্দে লুকিয়ে আছে বাঙালির আশা আকাঙ্খা ,সংগ্রাম স্বধীনতা, মানবতা মুক্তির নির্দেশনা।

মুক্তিযুদ্ধের বীরত্ব গাঁথা, বাংলাদেশের উন্নয়ন, স্বপ্নের পদ্মাসেতুর বর্ননা, নতুন প্রজম্মের জন্য করণীয় কি এসব নিয়ে বক্তব্য দেনরুমেল হোসেন, করিমুজামান, শামসুস তোহা, আবিদ আমির, জসিম উদ্দিন, ইশতিয়াক বাবু, ইলিয়াস ঠাকুর, সামসুর রহমান সামু, কনক রেজা, শাজাহান কাজী, মহাম্মদ নূর।

উল্লেখ্য, কিছু সংখক বাংলাদশের নেতারা জ্যুমে যথা সময়ে ডুকতে না পেরে ব্যক্তিগত বার্তায় আক্ষেপ করেছেন। পরিশেষে জাতির জনক ও তাঁর পরিবার সহ মুক্তিযুদ্ধে শাহাদাত বরণকারী শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন শামসুস তোহা।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected