এবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত
English

এবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত

এবার যুক্তরাষ্ট্রে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত

যুক্তরাষ্ট্রেও প্রথম কোনো ব্যক্তির শীরের কোভিড-১৯-এর নতুন ধরন (স্ট্রেন) বা ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। যা এর আগে যুক্তরাজ্যে প্রথম শনাক্ত করা হয়। এই ভাইরাসটি খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যে ২০ বছর বয়সী এক ব্যক্তির শরীরে নতুন ধরনের এই করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। তাকে এখন আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

অঙ্গরাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বলেছেন, করোনার নতুন ধরনে সংক্রমিত রোগীর সান্নিধ্যে কারা কারা এসেছিলেন, তাদের শনাক্তে তারা কাজ করছেন। এ ছাড়া আরও কেউ এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন কি না, তা তারা যাচাই করে দেখছেন।

যুক্তরাজ্যে পাওয়া করোনার নতুন ধরন নিয়ে দুশ্চিন্তা শুরু হয়েছে বিশ্বব্যাপী। ইতোমধ্যে অন্যান্য দেশেও পাওয়া গেছে উচ্চ সংক্রমিত এই নতুন ধরন। যুক্তরাজ্যের বাইরে কানাডায় দুই ব্যক্তির শরীরে পাওয়া যায় করোনার নতুন ধরন। ছয় ভারতীয়র শরীরেও করোনার এই নতুন ধরন পাওয়া গেছে বলে মঙ্গলবার দেশটির পক্ষ থেকে জানাননো হয়েছে।

করোনার নতুন ধরন আগের ধরনের তুলনায় দ্রুত ও বেশি ছড়ায় বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। যুক্তরাজ্যের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, করোনার আগের ধরনের তুলনায় নতুন ধরনের ছড়ানোর ক্ষমতা ৭০ শতাংশ বেশি।

যুক্তরাজ্যে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত হওয়ার জেরে সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ–নিষেধাজ্ঞা দেয়। করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইন নিয়ে বেশ চাপে রয়েছে ইউরোপের বিভিন্ন দেশসহ পুরো বিশ্ব। সংক্রমণ ঠেকাতে বিভিন্ন দেশে নতুন করে লকডাউনও ঘোষণা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনায় বিশ্বে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে প্রায় দুই কোটি মানুষ করোনায় সংক্রমিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মারা গেছেন ৩ লাখ ৪০ হাজারের বেশি মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমানে করোনার দুটি টিকা দেওয়া হচ্ছে।

সূত্র: বিবিসি।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected