সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করে যেতে চান ডিসি সাজ্জাদুর রহমান সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করে যেতে চান ডিসি সাজ্জাদুর রহমান

রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০৭:৩৮ পূর্বাহ্ন







সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করে যেতে চান ডিসি সাজ্জাদুর রহমান

সেবার মানসিকতা নিয়ে কাজ করে যেতে চান ডিসি সাজ্জাদুর রহমান

মাসুদ রানা:

ঝিনাইদহ জেলার কৃতি সন্তান ঝিনাইদহ জেলার গর্ব বাংলাদেশ পুলিশের একজন চৌকস মেধাবী পুলিশ কর্মকর্তা রমনা বিভাগের সুযোগ্য ডিসি সাজ্জাদুর রহমান। সাজ্জাদুর রহমান ১৯৭৫ সালের ১ এপ্রিল ঝিনাইদহ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।তিনি ২০০৩ সালে বাংলাদেশ পুলিশে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। এরপর তিনি সিলেট, নীলফামারী ও ময়মনসিংহ জেলায় সার্কেল এএসপি হিসেবে কাজ করেন। এরপর সাজ্জাদুর রহমান ২০১০ সালে জাতিসংঘ মিশনে ইউএনপিওএল লাইব্রেরিয়ায় যান। সেখানে তিনি লজিস্ট্রিক সেকশনের টিম লিডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সফলভাবে জাতিসংঘের মিশন শেষে করে তিনি ২০১২ সালে নারয়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করেন। ২০১৫ সালে তিনি পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (পশ্চিম বিভাগের) উপকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি সাতক্ষীরার এসপির দায়িত্ব পান। গত ২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদারকে ঢাকার এসপি হিসেবে বদলি করা হয়।তার স্থলাভিষিক্ত হয়ে সাজ্জাদুর রহমান ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) হিসেবে দায়িত্ব ভার গ্রহন করেন। ডিসি রমনা বিভাগের যোগদানের পর থেকে সেবার মানসিকতা নিয়ে নিজের মেধা শ্রম সাহসিকতার দিয়ে রমনা বিভাগের আওতাধীন,শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী, মাদক সেবনকারী,সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ,চাঁদাবাজ, মাদক নির্মুলে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালক করেছেন ।সাজ্জাদুর রহমান এর চৌকস নেতৃত্বের কাছে অনেক শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী’রা এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকা পালিয়ে গিয়েছেন । উক্ত রমনা বিভাগের আওতাধীন রয়েছে,বাংলাদেশ সচিবালয়,হাইকোর্ট,সুপ্রিমকোর্ট ,গর্ণপূর্ত ভবন,ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটাল,ঢাকা ইউনিভার্সিটি,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল হসপিটালসহ অনেক গুরুত্বপূন্য দপ্তর ।কোভিড-১৯ সারা বিশ্বে যখন একটি আতংকের নাম ঠিক তখনি গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম কোভিড-রোগি ধরা পড়ে ঠিক তখনি তিনি নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কঠোর লক ডাউনে রাস্তায় নেমে কাজ করেন ও আত্নমানবতার সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখে অসহায় হত দরিদ্র মানুষের পাশে সাহায্যের হাত বাডিয়ে দিয়ে বিনা মূল্যে মাস্ক বিতরন কর্মহীনদের বাসায় বাসায় খাদ্য সামগ্রী বিতরন সহ হাজারো মানবিক কাজের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন রমনা বিভাগের ডিসি সাজ্জাদুর রহমান। কিশোর অপরাধ’ কিশোর গ্যাং বৃদ্ধিতে ডিসি সাজ্জাদুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম’কে অপব্যবহারের কারনে অপরাধের মাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে তার মধ্যে পিতা মাতার উদাসিনতাকে ও দায়ী করে তিনি বলেন,ছেলে মেয়েদের কোয়ালিটি সময় না দিলে তারা সময় কাটানোর জন্য বিভিন্ন কিশোর গং নামক অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে বলে তিনি মনে করেন। সর্বপরি তিনি বলেন,আমাদের দেশ থেকে এখন ও করোনা যায়নি করোনার দ্বিতীয় ডেউ চলিতেছে ইতিমধ্যে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হলো বাংলাদেশে তাই সকলের উদ্দ্যোশে বলতে চাই সকল’কে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করুন ঘরে থাকুন সুস্থ থাকুন ।

শেয়ার করুন




All Rights Resrved & Protected