চল্লিশের পরেও তারুণ্য ধরে রাখতে যে ৫টি খাবার খাবেন চল্লিশের পরেও তারুণ্য ধরে রাখতে যে ৫টি খাবার খাবেন

সোমবার, ২১ Jun ২০২১, ০১:১৮ অপরাহ্ন







চল্লিশের পরেও তারুণ্য ধরে রাখতে যে ৫টি খাবার খাবেন

চল্লিশের পরেও তারুণ্য ধরে রাখতে যে ৫টি খাবার খাবেন

তারুণ্য
তারুণ্য ধরে রাখতে যে ৫ খাবার খাবেন

মনের পাশাপাশি চেহারায়ও তারুণ্য ধরে রাখতে চান অনেকেই। অনেক সময় একই বয়সের হলেও দু’জন ব্যক্তির মধ্যে একজনকে অনেকটাই বয়স্ক লাগলেও অপরজনকে  তুলনামূলক তরুণ মনে হয়। এর আসল রহস্য হলো, খাদ্যাভ্যাসসহ জীবনযাপনের কিছু দিক বদলে নিলে সহজেই তারুণ্য ধরে রাখা সম্ভব। যাকে দেখতে তুলনামূলক তরুণ মনে হচ্ছে, সে সেসব নিয়ম মেনেই জীবনযাপন করছে।

মূলত বয়স যখন চল্লিশ পার হয় ঠিক তখনই মানুষ ধীরে ধীরে বার্ধক্যের দিকে উপনীত হতে থাকে। এই বয়সে পেশাজীবন, সংসার, সাফল্য তুঙ্গে থাকে। তারুণ্যের ছটফটানির দিন শেষ হতে থাকে। আর তাই এসময়েও নিজেকে সুস্থ রেখে জীবনকে উপভোগ করতে ও তারুণ্য ধরে রাখতে হলে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে খাবারের দিকে। এসময় অতিরিক্ত কার্বস জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। জেনে নিন কোন খাবারগুলো খাবেন-

ওটস

পাতে ওটস

পুষ্টিবিদরা বলছেন, বয়স চল্লিশ পার হওয়ার পর সকালের নাস্তায় ওটস হতে পারে উপকারী। কারণ এতে আছে পর্যাপ্ত ফাইবার। এটি শরীরে শক্তি জোগাতে সহায়তা করে। প্রতিদিন মাত্র ৩০ গ্রাম ওটস আপনাকে সারাদিন প্রাণবন্ত রাখতে পারে। এতে থাকা ফাইবার হজমশক্তি বাড়ায়। বয়স বাড়লেও তার ছাপ পড়তে দেয় না চেহারায়।

 

 

দুধ-

নিয়মিত দুধ পান

৪০ পার হওয়ার পর শরীরের প্রয়োজন হয় আরও বেশি পুষ্টি উপাদানের। তাই এসময় নিয়মিত দুধ পান করতে হবে। কারণ এতে আছে উচ্চ প্রোটিন ও পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম। ফলে দুধ পান করলে তা পেশির শক্তি বাড়ায় এবং হাড়ের ক্ষয় থেকে মুক্তি দেয়। দুধে থাকা ইলেক্ট্রলাইটস শরীর ভেতর থেকে আর্দ্র রাখে। তারুণ্য ধরে রাখতে প্রতিদিন সকালে একগ্লাস দুধ পান করুন।

 

কলা-

যে কারণে কলা খাবেন

উপকারী আরেকটি খাবার হলো কলা। এটি দ্রুত শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। কলায় আছে প্রচুর ভিটামিন, পটাশিয়াম ও আয়রন। স্বাস্থ্যকর ডায়েটের অংশ হলো এই উপকারী খনিজ সমৃদ্ধ খাবার। সঙ্গে কলা রাখলে টিফিনে বা অফিসে কাজের বিরতিতেও খেতে পারেন। পুষ্টিকর নাস্তা হিসেবে কলা রাখতে পারেন খাবারের তালিকায়।

 

 

মিষ্টি আলু-

কেন খাবেন মিষ্টি আলু?

মিষ্টি আলুর উপকারিতা সম্পর্কে অনেকেরই জানা নেই। এতে আছে প্রচুর কার্বস। যা সঠিক উপায়ে প্রতিদিন শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। মিষ্টি আলুতে আছে পর্যাপ্ত ভিটামিন এ। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পাশাপাশি বাড়ায় মুখের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলোর কার্যকারিতা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই বাড়ে সৌন্দর্য। চোখ ভালো রাখতেও কাজ করে মিষ্টি আলু।

 

 

ডার্ক চকোলেট-

ডার্ক চকোলেটের উপকারিতা

ডার্ক চকোলেট নানাভাবে উপকার করে থাকে। যেমন এতে আছে অনেকগুলো উপকারী খনিজ। মন ভালো রাখতে ও শক্তি বৃদ্ধির জন্য ডার্ক চকোলেট খেতে পারেন। এতে থাকা ক্যাফেইন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আপনাকে সুস্থ ও সুন্দর রাখতে সাহায্য করবে।

শেয়ার করুন




All Rights Resrved & Protected