‘বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের দিন সরে যাওয়া’
English

‘বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের দিন সরে যাওয়া’

‘বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের দিন সরে যাওয়া’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সীমান্ত সমস্যা নিয়ে বিএনপির কর্মসূচি লোক দেখানো, সরকার সীমান্ত এলাকার স্থিতিশীলতা রক্ষায় অত্যন্ত আন্তরিক। বিএনপির গণতন্ত্র হচ্ছে– তাদের নির্বাচনে জয়ী হওয়ার গ্যারান্টি দেয়া। তাদের গণতন্ত্র হচ্ছে– হাওয়া ভবনের লুটেরা সাম্রাজ্য পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা এবং নির্বাচনে অংশ নিয়ে ভোটের দিন সরে যাওয়া।

মঙ্গলবার (২২ ‍ডিসেম্বর) সকালে সচিবালয়ে তার দফতরে সিলেট-শ্রীমঙ্গল ও সিলেট-হবিগঞ্জ রুটে বিআরটিসি বাস সার্ভিস উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

তিনি বলেন, ‘বিএনপিতে গণতন্ত্রের চর্চা নেই’ এ কথা বলায় মির্জা ফখরুল সাহেব নাকি কষ্ট পেয়েছেন। দলটির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল কত বছর আগে হয়েছিল, হয় তো ফখরুল সাহেব তা ভুলেই গেছেন।

তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্র একটি বিকাশমান প্রক্রিয়া, হঠাৎ করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা পায় না। গণতন্ত্র এক চাকার সাইকেল নয়, গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিতে হলে প্রয়োজন সব পক্ষের সদিচ্ছা।

দেশে গণতন্ত্র নেই বলে বিএনপি নেতাদের অভিযোগের জবাবে তিনি বলেন, তা হলে আপনারা প্রতিনিয়ত সরকারের সমালোচনা করছেন কীভাবে? গণতন্ত্র আছে বলেই তো আপনারা সমালোচনা করে যাচ্ছেন।

গঙ্গার পানি বণ্টন প্রসঙ্গে বিএনপি নেতাদের বিভিন্ন বক্তব্য প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, তারা ক্ষমতায় থাকাকালীন গঙ্গার পানি বণ্টনের কথা ভুলে গেলেও আওয়ামী লীগ সরকার ভুলে যায়নি।তিস্তা পানি বণ্টনও সমাধান হবে অচিরেই, এ বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প আগামী মাসে একনেকে অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হবে বলেও তিনি জানান।

এ সময় ভার্চুয়াল প্লাটফরমে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন, সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বিআরটিসির চেয়ারম্যান, সিলেট বিভাগীয় কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজিসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected