নিষিদ্ধ হচ্ছেন পরিমনী
English

নিষিদ্ধ হচ্ছেন পরিমনী

নিষিদ্ধ হচ্ছেন পরিমনী

আলোচিত নায়িকা পরীমণি
আলোচিত নায়িকা পরীমণি

রাজধানীর একাধিক সামাজিক ক্লাব এবং বারে নিষিদ্ধ ঘোষিত হয়েছেন আলোচিত নায়িকা পরীমণি। তার সাম্প্রতিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে বিরক্ত হয়ে সবাই এ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। পরীমণিকে স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে এরই মধ্যে সামাজিক ক্লাবগুলোর কর্তৃপক্ষের মধ্যে।  

বিভিন্ন ক্লাব ও চলচ্চিত্রাঙ্গনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, পরীমনি নিয়মিত রাজধানীর বিভিন্ন ক্লাব ও বারে যাতায়াত করেন। সেক্ষেত্রে প্রতিদিনই তিনি মধ্যরাতেই কোনো না কোনো সঙ্গীকে নিয়ে এসব বার ও ক্লাবে গিয়ে থাকেন। উত্তরা ক্লাব, গুলশান কমিউনিটি ক্লাব, গুলশান ক্লাব, শাহীন ক্লাবসহ ঢাকার বেশ কয়েকটি ক্লাবে তার যাতায়াত ছিল নিয়মিত। আর যেখানেই যেতেন, সেখানেই কোনো না কোনো সমস্যা তৈরি করতেন বলে অভিযোগ রয়েছে। বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি বিল না দেয়ার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে ।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতেই পরীমনিকে ঢাকার ক্লাব ও বারগুলোতে ঢুকতে না দেয়ার সিদ্ধান্ত আলোচনায় রয়েছে। এ ক্ষেত্রে কৌশলগত কারণে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো ঘোষণা না এলেও মৌখিকভাবে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট প্রত্যেককে জানিয়ে দেয়া হবে।চলচ্চিত্রাঙ্গনের অন্য কারও বিরুদ্ধে এই নিষেধাজ্ঞা নেই জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এই নিষেধাজ্ঞা শুধু পরীমনির জন্য। শুধু আমাদের ক্লাব নয়, ঢাকার সব ক্লাবই এই সিদ্ধান্ত অনুসরণ করবে।

এ বিষয়ে জানতে পরীমনির মোবাইল নম্বরে বেশ কয়েকবার কল করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। পরীমনির ঘটনায় এর আগে ব্রিফিং করে আসা ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশীদও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

পরীমণি কিংবা তার মত কাউকে ক্লাবে কোনো সদস্য নিয়ে গেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শুধু তাই নয়, কোন অনাকাংঙ্খিত ঘটনা ঘটলে সংশ্লিষ্ট সদস্যের সদস্যপদ খারিজ করা হবে। ক্লাব ও বারগুলোর এ সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছেন চলচ্চিত্র প্রযোজক, পরিচালক, শিল্পী ও প্রদর্শকরা। তারা বলছেন, ব্যক্তি বিশেষের নীতিহীনতার দায়ভার কোনোভাবেই পুরো চলচ্চিত্র জগত নিতে পারে না। পরীমণি বাংলাদেশের সিনেমার বড় ধরণের ক্ষতি সাধন করেছেন। নেতিবাচক ধারণা তৈরি করেছেন চলচ্চিত্র জগত সম্পর্কে। তার কারণে ক্ষতির শিকার হচ্ছেন অন্য অভিনেত্রীরাও।

এদিকে, পুলিশ গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমণির ভাঙচুর ও মাতলামির সকল সিসিটিভির ফুটেজ পরীক্ষা করে সত্যতা পেয়েছে। এখন পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে বোট ক্লাবের ফুটেজগুলো। প্রয়োজনে পুলিশ পরীমণি ও তার সঙ্গীদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected