‘৯০ ভাগ মানুষের বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ নেই’
English

‘৯০ ভাগ মানুষের বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ নেই’

‘৯০ ভাগ মানুষের বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ নেই’

দেশে সাধারণ মানুষের জন্য করোনার কোনো চিকিৎসা নেই বলে জানিয়েছেন, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তিনি বলেন, রাজধানীর বেশ কয়েকটি বেসরকারী হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা আছে কিন্তু অত্যন্ত ব্যয় বহুল। দেশের ৯০ ভাগ মানুষের বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার সামর্থ নেই। রাজধানীর বড় কয়েকটি হাসপাতালে কিছু চিকিৎসা থাকলেও দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে করোনার কোনো চিকিৎসা নেই বললেই চলে।

শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) জাপার বনানী কার্যালয়ে জাতীয় তরুন পার্টির প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন- আমাদের দেশে মৃত্যুর হার কম। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, যেখানে চিকিৎসা নেই, হাসপাতালে বেড নেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসক নেই সেখানে মৃত্যুর হার কম হলে মন্ত্রীর কৃতিত্ব কী? দেশের সাধারণ মানুষ ঔষুধ ও চিকিৎসা ছাড়াই মহান আল্লাহর রহমতে বেঁচে যাচ্ছেন। আবার যারা শারীরিকভাবে দুর্বল তারা মৃত্যুর মুখে ঢলে পড়ছেন।

তিনি বলেন, দেশে বেকারত্বের হার বেড়ে যাচ্ছে। দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির লাগাম টানতে পারছেনা সরকার। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে।

জাতীয় পার্টির সভাপতি বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ উচ্চ আদালতের রায় অনুযায়ী একজন বৈধ রাষ্ট্র প্রধান হিসেবে ৩ জোটের রুপরেখা অনুযায়ী সাংবিধানিকভাবেই রাষ্ট্রক্ষমতা হস্তান্তর করেছেন। তাকে কখনোই স্বৈরাচার বলা যাবেনা।

জিএম কাদের বলেন, ৯১ সালের নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে প্রচার প্রচারণা করতে দেয়া হয়নি, পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদসহ জাতীয় পার্টি নেতাকর্মীদের জেলে আটকে রাখা হয়েছিলো। ৩ জোটের রুপরেখা অনুযায়ী জাতীয় পার্টির সাথে বেঙ্গমানী করা হয়েছে, জাতীয় পার্টির সাথে কথা রখেনি। তারপরও জেলে বন্দি থেকেই পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ দুই বার ৫টি করে আসনে নির্বাচিত হয়েছিলেন। কোনো নির্বাচনেই এরশাদ পরাজিত হননি, এতে প্রমাণ হয় পল্লীবন্ধু ছিলেন জননন্দিত নেতা।

তিনি  আরও বলেন, ৯১ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি গণতন্ত্রের নামে সংসদীয় একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। যারা সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করে, সেই দলের প্রধানই হন সংসদীয় দলের নেতা এবং সরকার প্রধান। ৭০ ধারার কারণে সরকার প্রধানের কথার বাইরে দলের কেউই ভোট দিতে পারে না। সরকার প্রধান যা বলেন তাই সংসদে পাস হয়, যতটুকু বলেন ততটুকুই পাশ হয়। এটা গণতন্ত্র নয়, এটাকে বলা যায় সংসদীয় এক নায়কতন্ত্র। সংসদীয় গণতন্ত্রে যেখানে সংসদ সরকারকে নিয়ন্ত্রণ করবে সেখানে সরকারই সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করছে। এক নায়কতন্ত্রে দুর্নীতি বেড়ে যায়।

জাতীয় তরুণ পার্টির আহ্বায়ক জাকির হোসেন মৃধার সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব মোড়ল জিয়াউর রহমান-এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিনিধি সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টি মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, দেশের তরুন সমাজ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে মাদকের ছোবলে। দেশের মানুষের কাছে পদ্মাসেতুর চেয়ে তরুণ সমাজ রক্ষাই জরুরি। তরুণ সমাজ সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, দলবাজী ও দখলবাজীতে জড়িয়ে পড়েছে। তরুণ সমাজ ধ্বংস হয়ে যাবে এজন্য ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধারা জীবনবাজী রেখে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেনি।

তিনি বলেন, ঊপনিবেসিক ব্যবস্থা ভেঙে পল্লীবন্ধু এরশাদ দেশে নানা সংস্কার করেছেন। উপজেলা পরিষদ সৃষ্টি করে তৃণমূলে মানুষের অধিকার পৌঁছে দিয়েছিলেন।

জিএম কাদের বলেন, এলজিইডি প্রতিষ্ঠা করে সারাদেশের রাস্তা-ঘাট উন্নয়নে যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন। দুটি দলের দুঃশাসন, দুর্নীতি আর নিপিড়নে দেশের মানুষের নাভিশ্বাস উঠেছে। দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়, দুটি দলের হাত থেকে মুক্তি পেতে চায়। আগামী নির্বাচনে গোলাম মোহাম্মদ কাদের এর নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে সরকার গঠন করে দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, জহিরুল ইসলাম জহির, চেয়ারম্যানের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা মাহমুদুর রহমান মাহমুদ, ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান খান, যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক এনাম জয়নাল আবেদিন, আনোয়ার হোসেন তোতা, তরুণ পার্টির নেত সিরাজুল ইসলাম, সৌরভ হোসেন সবুজ, কাউসার আহমেদ, মোজাম্মেল হোসেন মায়া, আমজাদ হোসেন প্রধান, হেলাল বিশ্বাস, মিজানুর রহমান মিজান, জহিরুল ইসলাম ফারুক, বেলাল আহমেদ, একেএম সুজন, সাইফুল ইসলাম, সুলতান আহমেদ, রেজাউল করিম, শেখ আজিজুল হক খোকন, রুবেল হাসান, মোঃ ইসমাইল হোসেন, মোঃ সোলাইমান, উজ্জ্বল কুমার সাহা, কামাল উদ্দিন, শাহাদৎ হোসেন সজিব ও শাহরিয়ার নাজিম।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected