আটকেপড়া ইতালি প্রবাসীদের ফেরাতে জোর চেষ্টা : শামীম আহসান
English

আটকেপড়া ইতালি প্রবাসীদের ফেরাতে জোর চেষ্টা : শামীম আহসান

আটকেপড়া ইতালি প্রবাসীদের ফেরাতে জোর চেষ্টা : শামীম আহসান

আটকে পড়া ইতালি প্রবাসীদের ফেরাতে জোর চেষ্টা : শামীম আহসান
আটকেপড়া ইতালি প্রবাসীদের ফেরাতে জোর চেষ্টা : শামীম আহসান

ইতালি থেকে বাংলাদেশে এসে আটকেপড়া প্রবাসীদের সেদেশে ফেরাতে জোরালো কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রদূত শামীম আহসান। আজ শনিবার (১২ জুন) এক ভিডিও বার্তায় এ তথ্য জানান তিনি।

রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, আটকেপড়া প্রবাসীদের ফেরাতে বিশেষ ব্যবস্থার জন্য ইতালি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছি।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশিদের ইতালিতে প্রবেশ নিষেধাজ্ঞার কারণে অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। তারা কাজে যোগদান করতে পারছে না। ইতালির বাংলাদেশ দূতাবাস এজন্য দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কূটনৈতিকপত্র দিয়েছে। এ নিয়ে আমরা সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারই ধারাবাহিকতায় ১০ জুন ইতালির স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলেছি। আমরা সার্বক্ষণিকভাবে যোগাযোগ রাখছি।

শামীম আহসান আরো বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও ঢাকায় ইতালির দূতাবাসের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছে। আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত জানান, ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে আমরা হাইলাইট করেছি যে, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণে যে ব্যবস্থা নিয়েছে, তাতে চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই। তাদের আমি আশ্বস্ত করেছি, চিন্তিত হওয়ার কোনো কারণ নেই।

রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, প্রবাসীরা আটকে পড়ায় শুধু তাদের স্বার্থ নয়, ইতালিয়ান নিয়োগকর্তাদের স্বার্থ জড়িত। ইতালিতে যেসব রেস্তোরাঁ রয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনুপস্থিতেতে সেগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। তারা চিন্তায় আছেন কখন বাংলাদেশি কর্মীরা বা অন্যান্য দেশের কর্মীরা তাদের দেশে আসবে।

বাংলাদেশসহ আরও দুটি দেশের জন্য আগামী ২১ জুন পর্যন্ত দেশটিতে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। মূলত করোনার বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে ইতালি।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected