সাংবাদিক তানু গ্রেফতারের ঘটনায় সামাজিক মাধ্যমে নিন্দার ঝড়
English

সাংবাদিক তানু গ্রেফতারের ঘটনায় সামাজিক মাধ্যমে নিন্দার ঝড়

সাংবাদিক তানু গ্রেফতারের ঘটনায় সামাজিক মাধ্যমে নিন্দার ঝড়

দুর্নীতি নিয়ে রিপোর্ট করায় সাংবাদিক তানু গ্রেফতার,সামাজিক মাধ্যমে নিন্দার ঝড়
দুর্নীতি নিয়ে রিপোর্ট করায় সাংবাদিক তানু গ্রেফতার,সামাজিক মাধ্যমে নিন্দার ঝড়

ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্নীতি নিয়ে রিপোর্ট করায় সাংবাদিক তানুকে গ্রেফতা্রের  এ ঘটনায় সর্বস্তরে নিন্দার ঝড় উঠেছে। সাংবাদিক থেকে শুরু করে সা’ধারণ মানুষও ফেসবুক পোস্ট করে নিন্দা জানাচ্ছেন। 

বাংলাদেশ প্রতিদিন এর  লেখক, রাফিউজ্জামান সিফাত ফেসবুকে পোস্ট করে লেখেন-“আর্জেন্টিনা ব্রাজিল অফসাইড ইউরো তর্কাতর্কির মধ্যে যে ভয়াবহ সংবাদটি আড়ালে পড়ে যাচ্ছে, দুর্নীতি নিয়ে রিপোর্ট করায় একজন সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও জেলা সাংবাদিক প্রতিনিধি তানুকে গতকাল গ্রেফতার করা হয়। তার অন্যায় তিনি হাসপাতালের দুর্নীতি নিয়ে নিউজ করেছিলেন।

করোনা আক্রান্ত রোগীদের দিনে সরকারি খরচে হাসপাতালে ৩০০ টাকার খাবার প্রদানের আদেশ থাকলে দেয়া হচ্ছিল ৭০ থেকে ৮০ টাকার নিম্নমানের খাবার।

পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে হাসপাতাল প্রশাসন ‘দু-একদিন খাবার সরবরাহে ব্যত্যয়’ ঘটার তথ্য অকপটে স্বীকার করে কিন্তু তা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় হাসপাতালের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ‘ভাবমূর্তি বিনষ্ট’ এবং ‘সুনাম ক্ষুণ্ন’ হওয়ায় সাংবাদিকের নামে মামলা করে তাকে জেলে পাঠিয়ে দেয়। যিনি মামলা করেন পেশায় তিনি একজন চিকিৎসক।

গ্রেফতারের পর সাংবাদিক তানু অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়, সেখানে তার হাতে হান্ডকাফ লাগিয়ে রাখা হয়।

কারণ তিনি ভয়াবহ অপরাধী! দেশের শত্রু! দুর্নিতির তথ্য প্রকাশ করে তিনি দেশের ক্ষতি করেছেন!

দেশের জনগণের ট্যাক্সের টাকার নয়ছয় নিয়ে তিনি সংবাদ ছাপিয়েছিলেন। অথচ দেশের একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে প্রতিটি পয়সার হিসেব চাইবার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের আছে।মামলার ভয় দেখিয়ে সেই অধিকার ক্ষুণ্ণ করা হল।

সাংবাদিক তানু বেশ কয়েকটি জাতীয় দৈনিক এবং টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি।

ভাগ্য ভালো আজ তানুর জামিন হয় কিন্তু মামলা প্রত্যাহার হয়নি। আরও কয়দিন তাকে এই মামলার ঘানি টানতে হবে কেউ জানে না।ঢাকার বাইরে সাংবাদিকতার উত্তাপ গায়ে লাগেনা, তাই তানু নিয়ে সরগরম হয়নি ঢাকা কেন্দ্রিক বুদ্ধিজীবী সমাজ।

তানু তার দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তিনি তথ্য প্রকাশ করেছিলেন, একটা হাসপাতালের দুর্নীতি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিলেন।

সেই অপরাধে তানুর কণ্ঠ রোধ করে দেয়া হল। হায় রে … ক্ষমতা! হায়রে ভাবমূর্তি!

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected