ম্যারাডোনার দেহ সংরক্ষণ করার সিদ্ধান্ত
English

ম্যারাডোনার দেহ সংরক্ষণ করার সিদ্ধান্ত

ম্যারাডোনার দেহ সংরক্ষণ করার সিদ্ধান্ত

কিংবদন্তি ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনার দেহ সংরক্ষণ করার রায় দিয়েছে আর্জেন্টিনার আদালত। কারণ যেকোনও সময় ম্যারাডোনার ডিএনএ প্রয়োজন হতে পারে।

সম্পত্তির ভাগবাটোয়ারা নিয়ে ঝামেলার কারণে অনেকেই নিজেকে ম্যারাডোনার উত্তরাধিকারী হিসেবে দাবি করছেন। আর্জেন্টিনার আদালতে দাবি উঠেছে, প্রমাণ সংগ্রহের জন্য দরকার হলে তাকে কবর থেকে তোলা হোক।

কে না জানে, ম্যারাডোনার সন্তান-সন্ততির সংখ্যা নিয়ে বিতর্কের অন্ত নেই। সর্বশেষ তাতে যোগ হয়েছে আরও এক নাম। ২৫ বছর বয়সী ম্যাগলি গিল নামের এক নারী দাবি করেছেন, আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক তার বাবা! এ নিয়ে আদালতেও হাজির হয়েছেন তিনি।

ম্যাগলি গিলের দাবি, তার মা নাকি তাকে জানিয়েছেন ম্যারাডোনাই তার বাবা। যদিও ম্যাগলি নিজে নিশ্চিত নন। এজন্যই আদালতে ম্যারাডোনার ডিএনএ পরীক্ষা করানোর দাবি তুলেছেন তিনি। আর্জেন্টিনার আদালতও তার দাবির যৌক্তিকতা প্রমাণ করতে ফুটবল রাজপুত্রের মরদেহ দাহ করার আগে ডিএনএ পরীক্ষার পক্ষে রায় দিয়েছেন।

ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর থেকেই তার সম্পত্তির ভাগ নিয়ে অনেকে বিভিন্ন দাবি তুলেছেন। সাবেক স্ত্রী ক্লদিয়ার ঘরে তার দুই মেয়ে দালমা ও জিয়ানিনার কথা সবাই জানে। এছাড়া মৃত্যুর অনেক আগেই আরও এক মেয়ে জানা, দুই ছেলে দিয়েগো ফার্নান্দো এবং দিয়েগো সিনাগ্রার কথাও স্বীকার করে গেছেন তিনি। কয়েক বছর আগে কিউবায় তার চার সন্তানের থাকার কথাও প্রকাশ্যে আসে। এখন আবার ম্যাগলি নামের ওই নারী দাবি করে বসলেন।

সবকিছু দেখে শুনে ম্যারাডোনার আইনজীবী অবশ্য বলছেন, ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর কিছু ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছি। এগুলো পরীক্ষা করলেই পিতৃত্বের দাবি প্রমাণ করা যাবে। ফলে কবর থেকে দেহ তোলার দরকার নেই। তবে তার এই যুক্তি কতটা ধোপে টিকবে তা নিশ্চিত নয়। তবে তিনি এও জানিয়েছেন, ম্যারাডোনার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী নির্বাচন খুব জটিল ব্যাপার হতে যাচ্ছে। কারণ নাপোলির সাবেক আর্জেন্টাইন অধিনায়ক উইল করে যাননি।

‘ম্যারাডোনা’ ব্র্যান্ড নিয়ন্ত্রণ করেন তার আইনজীবী মাতিয়াস মোরলা, অন্তত যুক্তরাষ্ট্র এবং আর্জেন্টিনায়। ফলে তার আইনজীবীও অন্যতম উত্তরাধিকারী।

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected