‘অপ্রতিরোধ্য’ উইলিয়ামসন, পেছনে ফেললেন লারা-পন্টিংকে

একের পর এক সেঞ্চুরির পর অবশেষ অনন্য রেকর্ড গড়ে নিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। বর্তমান ক্রিকেট সেরাদের মধ্যে অন্যতম এই ক্রিকেটার ক্রাইস্টচার্চে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম ইনিংসে  ক্যারিয়ারের চতুর্থ ডাবল সেঞ্চুরি  হাঁকিয়ে প্রবেশ করলেন টেস্টে সাত হাজারি রানের ক্লাবে।

৩২৭ বলে ২৪টি চারের মারে ২০০ রান স্পর্শ করেন এই কিউই অধিনায়ক। এর আগে গতকাল টেস্টের দ্বিতীয় দিন ১৪০ বলে ১০০ রান করেছিলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত আউট হন ২৩৮ রান করে।

সাত হাজার থেকে ১২৩ রান দূরে থাকতে ক্রাইস্টচার্চ টেস্ট খেলতে নামেন উইলিয়ামসন। পাকিস্তানের বিপক্ষে মাইলফলক স্পর্শ করেন উইলিয়ামসন। শুধু তাই নয়, এই ম্যাচে ক্যারিয়ারের চতুর্থ ডাবল সেঞ্চুরিও হাঁকান তিনি। ব্যাট হাতে পাকিস্তানি বোলারদের শাসন করে খেলেন ২৩৮ রানের কাব্যিক এক ইনিংস।

ফাহিম আশরাফের বলে শান মাসুদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে করেছেন ২৩৮ রান। ৩৬৪ বলের ইনিংসটি সাজানো ২৮টি চারে।

টেস্ট ইতিহাসে ৭ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁতে তাকে খেলতে হয়েছে ১৪৪ ইনিংস। এই মাইলফলক স্পর্শ করতে গিয়ে পেছনে ফেলেছেন ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিংদের। ৭ হাজার রানে পৌঁছতে লারার লেগেছিল ১৪৬ আর পন্টিংয়ের লেগেছিল ১৪৫ ইনিংস। তবে এই তালিকায় সবার ওপরে আছেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ। মাত্র ১২৬ ইনিংসে ৭ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি।

এর আগে কিউইদের হয়ে ৭ হাজারি ক্লাবে নাম লেখান রস টেলর। এছাড়া কিউইদের হয়ে সর্বপ্রথম সাদা পোশাকে ৭ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁয়েছেন সাবেক অধিনায়ক স্টিফেন ফ্লেমিং।

এদিকে, উইলিয়ামসনের ডাবল সেঞ্চুরির দিনে ভালো অবস্থানে আছে নিউজিল্যান্ড। ৬৫৯ রান করে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে কিউইরা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে