আন্তর্জাতিকএশিয়াপ্রধান খবর (বাংলাদেশ)

ধর্ষণ: নারীর পোশাক নিয়ে কথা বলে বিতর্কে জড়িয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী

ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণ হিসেবে নারীর পোশাককে দোষারোপ করেছেন। বিশ্বের প্রতিটি দেশে প্রায়ই শোনা যায় ধর্ষণের ঘটনা এতে নারীদের পোশাক কে দায়ি করে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

গতকাল বুধবার (৭ এপ্রিল) বিবিসির একটি প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি মন্তব্য করে বলেন, ‘যেকোনো সমাজেই ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি ইঙ্গিত দেয় যে, সেখানে অশ্লীলতা বেড়ে গেছে।’

ওই সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নারীদের শালীন পোশাক পরার পরামর্শও দেন। তিনি বলেন, ‘পর্দা করার সারবস্তুই হলো আকর্ষণ করা থেকে বিরত থাকা। নিজেকে বিরত রাখার ইচ্ছাশক্তি সবার নেই।’

মানবাধিকার সংগঠনসহ বিভিন্ন অধিকার সংগঠন ইমরান খানের এমন মন্তব্যের পর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে। বুধবার অনলাইনে এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতিতে অনেকে স্বাক্ষরও করেছেন। বিবৃতিতে ইমরান খানের মন্তব্যকে ‘ত্রুটিপূর্ণ, রূঢ় ও বিপজ্জনক’ বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যা বলেছেন সেটা আদতে ভুল, অসহনশীল এবং বিপজ্জনক। তার এ বক্তব্য সরাসরি ধর্ষণের পক্ষে প্রচারণা এবং এটি ধর্ষণের মতো অপরাধকে উসকে দেবে।’

এর আগে মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) হিউম্যান রাইটস কমিশন অব পাকিস্তান মন্তব্য করে যে ইমরান খানের এমন মন্তব্যে তারা ‘হতভম্ব’ হয়েছে।

গত বছর পাকিস্তানে এক পুলিশ কর্মকর্তা ধর্ষণের শিকার এক নারীকে রাতে পুরুষ সঙ্গী ছাড়াই বের হওয়ার কারণে তিরস্কার করেছিলেন। পরে ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়।

Back to top button
%d bloggers like this: