নাটোরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারিরীক নির্যাতন
English

নাটোরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারিরীক নির্যাতন

নাটোরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারিরীক নির্যাতন

নাটোরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারিরীক নির্যাতন
নাটোরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে শারিরীক নির্যাতন

নাটোরের বড়াইগ্রামে যৌতুকের জন্য এক গৃহবধূকে শারীরিক নির্যাতন করার অভিযােগ উঠেছে।শনিবার সকালে উপজেলার বড়াইগ্রাম ইউনিয়নের উপলশহর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর পিতা বাদী হয়ে   উপলশহর গ্রামের আতাব আলীর ছেলে আব্দুল কাদের বকুলকে আসামি করে থানায় একটি লিখিত অভিযােগ দিয়েছেন। নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূ বর্তমানে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গৃহবধূর বাবা জানান, বিয়ের পর থেকেই মেয়েকে যৌতুকের জন্য বিভিন্নভাবে শারিরীক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছিল তার স্বামী বকুলসহ শ্বশুর বাড়ির লােকজন।১২ বছর আগে আমি মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে বিয়ের সময় তিন লক্ষ টাকা যৌতুকও দিয়েছি।

আজকে আবার তার যৌতুক লােভী স্বামী বকুল আরো দুই লাখ টাকা আনার জন্য আমার মেয়েকে চাপ দেয়। টাকা এনে দিতে অস্বীকৃতি জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে বকুল আমার মেয়েকে বাঁশের লাঠি দিয়ে এলােপাথারি মারপিট করেন। এতে মারাত্মক জখম হয়ে আহত হয় মেয়ে।মেয়ের নির্যাতনের খবর পেয়ে শশুরবাড়ি থেকে আমি তাকে উদ্ধার করে বড়াইগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করি।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, অভিযােগ পেয়েছি। তদন্ত কর প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নাহিদুল ইসলাম,নাটোর

শেয়ার করুন


Advertisement




Ads Manager

All Rights Resrved & Protected